October 5, 2022

গুপ্তধনের লোভ দেখিয়ে ঠাকুরগাঁওয়ে এক গৃহবধূকে (২৭) তার তিন বছরের সন্তানের সামনে দলবেঁধে ধর্ষণ করেছে এলাকার বকাটে যুবকরা। ঘটনাটি গত শুক্রবার গভীর রাতে রুহিয়া ইউনিয়নের মধুপুর গুদাম পাড়া এলাকায় মিশন রেলগেট কোয়ার্টারে ঘটে।

এ ঘটনায় এলাকাবাসী জানায়, একই ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের মধুপুর গ্রামের পঞ্জিকা সাধক ও তান্ত্রিক প্রকাশ (ঝোল) ওই গৃহবধূকে গুপ্তধন দেয়ার লোভ দেখিয়ে এক মন্দিরে নিয়ে যায়। পরে কৌশলে ওই নারীকে মিশন রেলগেট কোয়ার্টারে নিয়ে আসে তারা। এরপর শিশু ওই গৃহবধূর সন্তানকে পাশে রেখে তান্ত্রিক ঝোল তাকে ধর্ষণ করে। পরে তার বন্ধু রুহিয়া মিশন রেল গেটম্যান সামিম (৩০), এনামুল হক (৩৭), মেজর (২৮) ও উজ্জল দাসকে (৩৫) এনে ধর্ষণ করে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে।

এ ঘটনার পর ওই গৃহবধূ অসুস্থ হয়ে পড়েন। ঘটনাটি তার আত্মীয়-স্বজনকে জানানোর পর শনিবার সকালে মামলা করতে গেলে স্থানীয় ইউপি সদস্য ইউসুফ আলী ও কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তি মামলা না করার জন্য ভয়ভীতি দেখায়।

সাবেক সংরক্ষিত আসনের ইউপি সদস্য বিনা রাণী জানান, ওই গৃহবধূ অনেক গরিব ও নিরীহ মানুষ। একই এলাকার সাধক ঝোল তাকে বিভিন্ন লোভ দেখিয়ে মিশন রেল গেটে নিয়ে যায়। পরে গেটম্যানসহ চার যুবক তাকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। আজ রবিবার সন্ধ্যায় বসার কথা আছে। অন্যদিকে ইউপি সদস্য ইউসুফ আলীর সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি। মুঠোফোনটিও বন্ধ রেখেছেন।

রুহিয়া ঘনিবিষ্ণুপুর আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক তসলিম উদ্দিন বলেন, ওই ইউপি সদস্য ভুক্তভোগী নারীকে মামলা করতে নিষেধ করেন। একই সঙ্গে মুখ বন্ধ রাখার জন্য কিছু টাকা পয়সার প্রস্তাব দেন এবং তার ভাইয়ের বাসায় কয়েকদিন লুকিয়ে থাকার জন্য চাপ দেন। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মনিরুল হক বাবু জানান, একটি মহিলার রাতে হারিয়ে যাওয়া। আবার পরের দিন সকালে খুঁজে পাওয়ার ঘটনা আমি শুনেছি। কিন্তু ধর্ষণের বিষয়টি আমি জানি না।

তবে এ বিষয়ে ঠাকুরগাঁও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোছা. সুলতানা রাজিয়া বলেন, একটি সন্তানের চোখের সামনে মাকে ধর্ষণের ঘটনাটি অত্যান্ত দুঃখজনক। আমি খোঁজ নিয়ে পুলিশ পাঠিয়েছি। যারা এই জঘন্য কাজ করেছে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

বার্তাবাজার/এম আই

Leave a Reply

Your email address will not be published.