October 2, 2022

রাজবাড়ীতে বিউটি আক্তার বৃষ্টি নামে এক প্রবাসীর স্ত্রীর ঘরে ঢুকে গলাকেটে হ্যাচেষ্টা অভিযোগ উঠেছে। আজ বুধবার (২ মার্চ) গভীর রাত ৩ ঘটিকার সময়দিকে সদর উপজেলার মুলঘর ইউনিয়নের পূর্ব মুলঘর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। গুরুতর অবস্থায় বৃষ্টিকে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রাজবাড়ী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

ভুক্তভোগী বিউটি আক্তার বৃষ্টির শাশুড়ি জেসমিন বেগম গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, তার বড় ছেলে পান্না মিয়া সৌদি আরবে থাকেন আর ছোট ছেলে মুন্না মিয়া ঢাকায় থাকেন। আর দুই ছেলের স্ত্রী ও তাদের দুই শিশু সন্তান নিয়ে বাড়িতে থাকেন তিনি। গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে তারা তিনজন রাতের খাবার খেয়ে চৌচালা টিনের ঘরের আলাদা আলাদা রুমে ঘুমিয়ে পড়েন। রাত ৩টার দিকে তার বড় ছেলে পান্নার স্ত্রী বৃষ্টির চিৎকারে তার ও ছোট ছেলের স্ত্রী আছিয়ার ঘুম ভাঙে। তারা দুজন দৌঁড়ে বৃষ্টির রুমে গিয়ে দেখেন তিনি খাটের উপর রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছেন। তার (বৃষ্টির) গলায় ও হাতে ধারালো অস্ত্রের জখমের চিহ্ন রয়েছে। এ সময় দ্রুত তাকে উদ্ধার করে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে সেখান থেকে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

বৃষ্টির শাশুড়ি আরও জানান, ঘরের দুই পাশে সিঁধ কেটে ঘরে ঢুকে এই ঘটনা ঘটানো হয়েছে। ঘরের দরজার ছিটকিনির সঙ্গে দুর্বৃত্তের হাতের রক্ত লেগে রয়েছে।

বৃষ্টির শাশুড়ি জেসমিন বেগম বলেন, এটি কোনো সাধারণ চুরির ঘটনা নয়। কারণ, চুরি করতে এলে চোরের ঘুমন্ত মানুষের শরীরে আঘাত করার কথা নয়। আর তাদের ঘর থেকে কোনো কিছু খোয়াও যায়নি। পূর্বশত্রুতার জেরে কেউ পরিকল্পিতভাবে এ ঘটনা ঘটিয়েছে। এ ঘটনায় রাজবাড়ী সদর থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি।

নিকর্টবতী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। তবে এখনো পর্যন্ত কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি। ঘটনাটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

বার্তাবাজার/এম.এম

Leave a Reply

Your email address will not be published.